কেমন হবে ২০২১ এর প্রযুক্তি (পর্ব- ২) - CSLiT | Connecting Technology

কেমন হবে ২০২১ এর প্রযুক্তি (পর্ব- ২)

গত পর্বে আমরা জেনেছি 5G ও Artificial Intelligence সম্পর্কে । এই পর্বে আমরা জানতে পারব Blockchain ও IoT (Internet of Things) সম্পর্কে।

Blockchain:
ব্লকচেইন হল ব্লকের চেইন। একটি ব্লকের সাথে অন্য একটি ব্লক সংযুক্ত করে এবং ওই ব্লকের সাথে অন্য একটি ব্লক যুক্ত করে যেমন চেইন আকারে তৈরি হয় এটিকেই ব্লক চেইন বলে। একেকটি ব্লকের মধ্যে মূলত অনেকগুলো তথ্য থাকে।যেমন বিটকয়েন ব্লকচেইনে মূলত ট্রানজেকশনের তথ্য থাকে।কে কাকে কত বিটকয়েন প্রদান করল তা এই ব্লকচেইনে সঙরক্ষন করা থাকে। কোনো রকম হ্যাকার দ্বারা এই তথ্যগুলো পরিবর্তন করা প্রায় অসম্ভব। কারণ প্রতিটি ব্লকের একটি ইউনিক হ্যাশ থাকে। ধরুন হ্যাকার ২ নম্বর ব্লকের তথ্য পরিবর্তন করেছে,যখন ওই ব্লকটির তথ্য পরিবর্তন করা হয় তখনই ওই ব্লকের সমানে থাকা ব্লকের হ্যাসটির সাথে মিলবে না। এভাবে সম্পূর্ন চেইনটি একটি আরেকটির সাথে সংযুক্ত যা হ্যাক বা ক্র্যাক করা প্রায় অসম্ভব।

IoT:

Internet of Things কে সংক্ষেপে IoT বলে, যার বাংলা অর্থ হল বিভিন্ন জিনিসপত্রের সাথে ইন্টারনেটের সংযোগ। বিভিন্ন প্রয়োজনীয় যন্ত্র বা জিনিসপত্রকে অটোমেটিক করার জন্য এসবের সাথে কম্পিউটার সিস্টেম সংযুক্ত থাকে। উদাহরণ হিসাবে বলা যায় কাপড় ধোয়ার মেশিন। কাপড়ের পরিমান এবং ওজন বিভিন্ন ধরনের সেন্সর ব্যবহার করে পর্যবেক্ষণ করে কাপড় ধোয়ার কাজটি অটোমেটিক ভাবে করার জন্য এই মেশিনের সাথে কম্পিউটার সিস্টেম সংযুক্ত থাকে, যাকে আমরা এমবেডেড সিস্টেম (Embedded System) বলি। জিনিসপত্রের এই কম্পিউটার সিস্টেমের সাথে ইন্টারনেটের সংযোগ দেয়ার মাধ্যমে আমরা তাকে বলছি ইন্টারনেট সংযোজিত জিনিসপত্র বা ইন্টারনেট অব থিংস। এই প্রযুক্তিতে আমাদের ঘরের বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রপাতি যেমন টিভি, ফ্রিজ, লাইট এগুলো ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকে এবং নেটওয়ার্কের এর সাথে সংযুক্ত থাকার কারণে এগুলো দিয়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ করা যায়।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *