বাজারে চলে এসেছে উইন্ডোজ-১১! - CSLiT | Connecting Technology

বাজারে চলে এসেছে উইন্ডোজ-১১!

অনেক জল্পকল্পনার অবসান ঘটিয়ে এবার বাজারে এসেছে উইন্ডোজ-১১।
উইন্ডোজ-১১ কি ব্যবহারকারীদের মন রক্ষা করতে পারবে? কারণ ‘উইন্ডোজ-৮’ভার্সনের নানা রকম সমস্যার কারণে মাইক্রোসফটকে ব্যপক সমালোচনা ও তোপের মুখে পড়তে হয়েছিল। পরবর্তীতে দ্রুততম সময়ে এর সমাধান হিসেবে উইন্ডোজ-১০ নিয়ে এসেছিলো Microsoft। উইন্ডোজ-৮ ব্যবহারকারীদেরকে বিনা পয়সায় উইন্ডোজ-১০ আপডেট করে দেওয়া হয়েছিলো এবং বলা হয়েছিল উইন্ডোজ-১০ ই হবে হয়তো উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের শেষ ভার্সন। কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতিও মাইক্রোসফট রাখতে পারলো না কারণ উইন্ডোজ-১০ এও রয়েছে বেশ কিছু বাগ, তাই সব ভুলভ্রান্তি দুর করে নতুন করে একটি আধুনিক মাপের অপারেটিং সিস্টেমের সূচনা করতে যাচ্ছে মাইক্রোসফট কর্পোরেশন।
কি থাকছে উইন্ডোজের নতুন ভার্সনে?
উইন্ডোজ-১১ এর মূল চমক হচ্ছে এর ‘মাইক্রোসফট স্টোর’। উইন্ডোজ-৮ ও উইন্ডোজ-১০ স্বল্প পরিসরে ‘মাইক্রোসফট স্টোর’থাকলেও নতুন এই ভার্সনের জন্য মাইক্রোসফট স্টোরকে ডিজাইন করা হয়েছে নতুনভাবে। উইন্ডোজ এর বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার থাকবে এই ‘মাইক্রোসফট স্টোর’-এ এবং এখান থেকেই ইনস্টল করতে হবে সবকিছু। তবে নতুন এই ‘মাইক্রোসফট স্টোর’-এ বড় ধরনের সুযোগ রয়েছে ডেভেলপারদের জন্য। গুগল প্লে-স্টোর এর মতো ডেভেলপাররা তাদের ডেভেলপ করা অ্যাপ্লিকেশন মাইক্রোসফট স্টোরে আপলোড করে রাখতে পারবেন এবং ব্যবহারকারীরা ফ্রি কিংবা টাকার বিনিময়ে সেসব অ্যাপ্লিকেশন সরাসরি ডাউনলোড ও ইনস্টল করতে পারবেন।
ইউজার ইন্টারফেস কিংবা লুক-এন্ড-ফিল এর বেলাতেও বেশ আকর্ষণীয় করা হয়েছে। বিভিন্ন আইকনগুলিতে চারকোনার পরিবর্তে কিছুটা গোলাকৃতির করা হয়েছে। নতুন এই ভার্সনে সিকিউরিটি ফিচারেও বেশ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। তবে চলমান উইন্ডোজ ১০ কে এই নতুন উইন্ডোজ ১১ ভার্সনে আপডেট সুবিধা নাও থাকতে পারে অর্থ্যাৎ এই ভার্সনটি নতুন করে কিনে নিতে হবে।

Share This:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *